জেনারেল ম্যানেজারের প্রতিবেদন

‘‘বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম’’

ঢাকা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর ২৫তম বার্ষিক সদস্য সভার সম্মানিত সভাপতি, পরিচালনা পর্ষদের সদস্যবৃন্দ, বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড হতে আগত কর্মকর্তাবৃন্দ, উপস্থিত স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ, পল্লী বিদ্যুতায়ন কার্যক্রমের সহিত সম্পৃক্ত সকল কর্মকর্তা/কর্মচারীবৃন্দ, আমন্ত্রিত অতিথিবর্গ, উপস্থিত সূধীমন্ডলী ও সম্মানিত গ্রাহক সদস্যবৃন্দ; আসসালামু আলাইকুম।

সম্মানিত সুধী,

আর্থ সামাজিক উন্নয়ন ও জনগণের জীবনযাত্রার মান-উন্নয়নে বিদ্যুৎ অপরিহার্য। শিল্প কারখানা, কৃষি কাজ, মানব সম্পদ উন্নয়ন, আধুনিক জীবনযাত্রা, চিকিৎসা, যোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার থেকে শুরু করে উন্নয়নের সকল ক্ষেত্রে চাই বিদ্যুৎ। সভ্যতা ও আধুনিকতার প্রধান নিয়ামক বিদ্যুৎ। দারিদ্র বিমোচন করে বাংলাদেশকে উন্নত দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে হলে বিদ্যুৎ একান্ত অপরিহার্য। সেই লক্ষে পর্যায়ক্রমে বিদ্যুতায়নের মাধ্যমে গ্রামীণ জনপদের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের লক্ষে ১৯৮০ সালের ২রা জুন আনুষ্ঠানিকভাবে বিদ্যুতায়নের পর থেকে বিভিন্ন প্রতিকুল অবস্থা দৃঢ়তার সাথে মোকাবিলা করে সমিতি ১০০% এলাকা বিদ্যুতায়নের দিকে অগ্রসর হচ্ছে।

ঢাকা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ কর্তৃক ডিসেম্বর’১৭ খ্রিঃ পর্যন্ত মোট ২৮১২.১৪৬ কিঃ মিঃ লাইন নির্মানের মাধ্যমে সর্বমোট ৪,১১,২২৫ জন বিভিন্ন শ্রেণীর গ্রাহকের বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান করা হয়েছে। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক ঘোষিত আগামী ২০২১ সালের মধ্যে এদেশের সকল এলাকায় ১০০% বিদ্যুৎ সেবার আওতায় আনার নির্দেশনা বাস্তবায়নের লক্ষে আমরাও অঙ্গীকারবদ্ধ এবং আশা করছি আগামী ২০১৮ সালের জুন মাসের মধ্যে ঢাকা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এ লক্ষমাত্রা অর্জনে সক্ষম হবে।

সম্মানিত গ্রাহক সদস্যবৃন্দ,

বিদ্যুৎ বিক্রয়ই সমিতির একমাত্র আয়ের উৎস, বিদ্যুৎ লাইন রক্ষণাবেক্ষণ, পরিচালন এবং অন্যান্য যাবতীয় ব্যয় গ্রাহকের নিকট হতে আদায়কৃত বিদ্যুৎ বিলের অর্থের মাধ্যমে ব্যয় নির্বাহ করা হয়। তাই নিয়মিত বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করতে সম্মানিত গ্রাহকগণকে অনুরোধ জানাচ্ছি। গ্রাহকদের বিদ্যুৎ বিল প্রদানের সুবিধার্থে সমিতির সদর দপ্তর, জোনাল অফিস সমূহ, ব্যাংক, ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার ছাড়াও টেলিটক রিটেইলার এজেন্টদের সহায়তায় এসএমএস এর মাধ্যমে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। এছাড়াও নতুন বিদ্যুৎ সংযোগের জন্য অন লাইনের মাধ্যমে আবেদন করার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

সম্মানিত সুধীমন্ডলী ও গ্রাহক সদস্যবৃন্দ,

জনসাধারণের জীবনযাত্রার মান উন্নয়নের সাথে সাথে বিদ্যুতের চাহিদা দিন দিন বেড়ে চলেছে। বিদ্যুৎ ঘাটতি মোকাবিলার জন্য সরকার কর্তৃক স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহণের মাধ্যমে বিদ্যুৎ উৎপাদনের সকল ধরনের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। ফলে লোড শেডিং হ্রাসসহ বিদ্যুৎ ব্যবস্থার যথেষ্ট উন্নতি সাধিত হয়েছে।

সম্মানিত সুধীমন্ডলী ও গ্রাহক সদস্যবৃন্দ,

বিদ্যুৎ ব্যবহারের সাশ্রীয় হওয়ার লক্ষে এনার্জি সেভিং বাল্ব, টিউব লাইট, ইলেকট্রনিক ব্যালাষ্ট, যথাযথ মানের ক্যাপাসিটরসহ বৈদ্যুতিক মটর এবং বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী সরঞ্জাম ব্যবহার করার জন্য অনুরোধ করছি।

উপস্থিত সুধীমন্ডলী,

বিদ্যুৎ অবকাঠামো জাতীয় গুরুত্বপূর্ন সম্পদ। জাতীয় সম্পদের কোন ক্ষতি সাধিত হলে গ্রাহক তথা জনগনই সবসময় দুর্ভোগে পড়েন। বিদ্যুৎ বিতরণের জন্য স্থাপিত স্থাপনাসমূহের নিরাপত্তা নিশ্চিতকল্পে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে এবং পাশাপাশি বৈদ্যুতিক স্থাপনা সমূহের সার্বিক নিরাপত্তার স্বার্থে জনগনকে সচেতন থাকার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি। সমিতি পরিচালনায় সার্বিক সহযোগিতা প্রদানের জন্য সম্মানিত গ্রাহক সদস্য, সমিতি পরিচালনা পর্ষদ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ, স্থানীয় প্রশাসন ও সংবাদ কর্মীসহ এলাকার জনগনকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি। পরিশেষে সকলের সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনাসহ সমিতির উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করছি।

 

মোঃ আজাহার আলী

জেনারেল ম্যানেজার

ঢাকা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১।